132+ Bengali Short Story | লুকিয়ে পুকুর পাড়ে সুন্দরী মেয়ের গোসল করা দেখা

Bengali Short Story: ১৭ বছরের মেয়ে রুপা তাদের বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করছে আর ঝোপঝাড়ে লুকিয়ে ১৫ বছর বয়সী সজিব সেটা দেখছে। প্রায় প্রতিদিনই রুপা এই পুকুরে গোসল করতে আসে আর দূর থেকে লুকিয়ে লুকিয়ে রুপার গোসল করা দেখে সজিব।

একদিন দুপুরে এই পুকুর পাড়ের আম গাছ থেকে আম চুরি করতে এসেছিলো সজিব, কারন দুপুরে এই জায়গায় লোকজন চলাচল করে খুব কম। যখন সে গাছের উপরে উঠে আম পাড়ছিল তখন সে দেখলো রুপা একটা কলসি নিয়ে পুকুর পাড়ে এসেছে।

Bengali Short Story

রুপাকে দেখে নিজেকে আড়াল করে রুপার দিকে নজর রাখতে শুরু করে সে। সে ভেবেছিলো কলসিতে পানি নিয়েই রুপা চলে যাবে, কিন্তু সেটা হয়নি। পুকুর পাড়ে কলসি রেখে রুপার নিজের কাপড় খুলতে শুরু করে। এমন সুন্দরী মেয়ের শরীর দেখে সজিব ভুলেই যায় যে সে আম চুরি করতে এখানে এসেছে।

কাপড় আর কলসি পুকুর পাড়ে রেখেই রুপা পুকুরে নেমে গোলস করছিলো। আর অবাক হয়ে রুপার ভেজা শরীরটা দেখছিলো সজিব। রুপার মাথা থেকে পেট পর্যন্ত ছিলো পানির উপরে আর বাকী অংশ পানির নিচে। অনেকক্ষন পানি নিয়ে খেলা করার পরে পুকুরে সাতার কেটে গোসল শেষ করেছিলো রুপা।

তারপর পাড়ে উঠে নিজের শরীর মুছে কাপড় পরে সে। এইসবই আড়াল থেকে দেখছিলো সজিব, যদিও সে অনেক ভয়ে ভয়ে ছিলো, কারন রুপা যদি কোন ভাবে বুঝতে পারে যে সজিব তাকে লুকিয়ে লুকিয়ে দেখছে তাহলে তো সর্বনাশ হয়ে যাবে!

যাইহোক, প্রথমদিন রুপার ভেজা শরীরটা দেখে সজিব এতোটাই আকর্ষিত হয়েছিলো যে সে প্রতিদিন পুকুর পাড়ে আসতে শুরু করেছিলো, আর সেটাই চলছে প্রতিদিন। আজকেও সে এসেছে, নিজেকে আড়াল করে রেখে দূর থেকে দেখছে রুপার শারীরিক সৌন্দর্য।

সজিবের মায়ের সাথে রুপার মায়ের অনেক খাতির, তাই সকালবেলা তাদের বাড়ির গাছের কাঁঠাল দিয়ে সজিবকে পাঠিয়েছে রুপাদের বাড়িতে। সেই কাঁঠাল রুপাদের বাড়িতে পৌঁছে দিয়ে বাড়ি ফিরছিলো সজিব, এমন সময় রুপা ওকে ডাক দেয়। সজিব রুপার কাছে গিয়ে বলে,

সজিব: কি রুপা আপু? আমারে ডাকছো? কিছু বলবা?

রুপা: কালকে দুপুরে পুকুর পাড়ে আসিস নাই কেন? আমি তো তোর জন্য অনেকক্ষন বসে ছিলাম।

সজিব: (ভয়ে ভয়ে বললো) কোন পুকুর পাড়! কি বলতাছো তুমি আপু, আমি তো বুঝতে পারতাছি না।

রুপা: হইছে, হইছে, আর নাটক করিস না, তুই যে প্রতিদিন লুকিয়ে লুকিয়ে আমার গোসল করা দেখিস সেটা আমি অনেক আগেই বুঝতে পেরেছিলাম।

সজিব: (আরো ভয়ে ভয়ে বললো) তুমি কাউকে কিছু বলো না দয়া করে! সবাই জানতে পারলে আমারে মাইরা ই ফালাইবো।

লুকিয়ে পুকুর পাড়ে সুন্দরী মেয়ের গোসল করা দেখা

রুপা: এতো ভয় পাচ্ছিস কেন! আমি কি বলছি নাকি যে আমি সবাইকে বলে দিবো! বলার হলে তো অনেক আগেই বলে দিতাম। এখন বল যে কালকে আসিস নি কেন?

সজিব: (মুখে অন্য রকম একটা হাসি দিয়ে বললো) আর বলো না, বাবার সাথে বাজারে গেছিলাম কাঁঠাল বিক্রি করতে, বাড়িতে ফিরতে ফিরতে বিকাল হয়ে গেছিলো।

রুপা: ওহ! তা, কালকে আসবি না?

সজিব: আসবো না মানে! ১০০ বার আসবো! তোমার এতো সুন্দর শরীর, পানিতে ভিজলে তোমার রুপ আরো বেড়ে যায়। আর তোমার…….

রুপা: আমার আমার কি? বল, শুনি…

সজিব: না, থাক, বললে রাগ করবা।

রুপা: না বললেই রাগ করবো, বলে ফেল মনের কথা।

সজিব: তোমার বুকের কাঁঠাল দুইটা অনেক সুন্দর, অনেক বড় বড়।

রুপা: হা হা হা, কাল বাজারে কাঁঠাল বিক্রি করে তোর মাথায় কাঁঠালের ভূত চেপেছে, তাই আমার আমার জিনিস দুইটাকে কাঁঠালের সাথে তুলনা করছিস। (বুকে হাত রেখে বললো) আমার বুকের এই জিনিস দুইটা কাঁঠালের মতো শক্ত না, অনেক নরম নরম।

সজিব: নরম নাকি শক্ত সেটা আমি কীভাবে বুঝবো, কখনো তো ধরার সুযোগ পাই নাই।

রুপা: তুই অনেক চালাক, যাই হোক, কাল দুপুরে আর আম গাছের আড়ালে লুকাতে হবে না, আমার সামনে আসিস, ধরতে দিবো, তখন ই বুঝতে পারবি।

এই Bengali Short Story টি সম্পূর্ণ কাল্পনিক, তবে একটা ব্যাপার বিশেষ ভাবে বোঝানো হয়েছে যে, গোসল করার সময় চারিদিকে ভালো ভাবে খেয়াল রাখবেন, নয়তো বিপদে পড়তে পারেন। প্রতিদিন prothomalo.org ওয়েবসাইটে এমন নতুন গল্প আপলোড করা হয়।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


19 − twelve =